ধর্ম নিয়ে অপমানকারীদের `পরিচয়’ নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন শামি

কিছু কিছু ঘটনা মানুষের জীবনে ‘গভীর দাগ’ কেটে যায়। যেগুলো চাইলেই ভোলা যায় না৷ মোহাম্মদ শামির বেলায়ও হয়েছে ঠিক তেমনই। দুবাইয়ে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচের চারমাস পেরিয়ে গেছে ঠিকই। কিন্তু ভারতীয় পেসার তা ভুলতে পারছেন না কিছুতেই।

দুবাই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ২০২১ সালের ২৪ অক্টোবর ভারতকে ১০ উইকেটে হারায় পাকিস্তান। যা ভারতের বিপক্ষে ওয়ানডে, টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ মিলিয়ে ১৩ বারের দেখায় প্রথম জয়৷

যেই ম্যাচে শামির বোলিং ফিগার ছিল: ৩.৫-০-৪৩-০। ম্যাচ শেষ হওয়ার পরপরই নেটিজেনরা শামির ধর্ম নিয়ে অবমাননা করা শুরু করে দেন।

চার মাসের আগের ঘটনা নিয়ে সোমবার ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে ভারতীয় পেসার বলেছেন, `এমন কুৎসিত রোগের কোনো চিকিৎসা নেই। যারা ধর্ম নিয়ে অবমাননা করে, তারা প্রকৃত ভারতীয় নয়। তারা কখনোই ভারতীয় ক্রিকেটের ভক্ত-সমর্থক হতে পারে না।’

শামি আরও যোগ করেছেন, `যদি কাউকে আমি রোল মডেল হিসেবে চিন্তা করি, আমি কখনোই তাদের সম্পর্কে উল্টাপাল্টা কিছু বলতাম না। যারা আমাকে নিয়ে বাজে মন্তব্য করেছে, তাদের কথায় আমি কিছু মনে করিনি। তারা কতটা অশিক্ষিত, তা তাদের আচরণেই প্রকাশ পেয়েছে।’

শামি অবশ্য নিজেকে একদিক থেকে ভাগ্যবান ভাবতে পারেন। নেটিজেনদের আক্রমণের পর পরই স্বদেশি কিংবদন্তি খেলোয়াড় সুনিল গাভাস্কার, শচিন টেন্ডুলকারসহ ইরফান পাঠান, বিরেন্দর শেবাগ সবাই শামির পাশে দাঁড়িয়েছিলেন। বিশ্বকাপ চলাকালীন ভারতীয় টি-টোয়েন্টি দলের অধিনায়ক বিরাট কোহলি ধর্মীয় অবমাননাকারীদের ‘মেরুদণ্ডহীন’ পর্যন্ত বলেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *